Breaking News

নোবেল-মোশাররফ যখন একসাথে

বিনোদন ডেস্ক : আদিল হোসেন নোবেল, বাংলাদেশের মডেলিং জগতের রাজপুত্র। নব্বই দশকের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত বলা যায় সমান জনপ্রিয়তা

নিয়ে মডেলিং করে যাচ্ছেন। মাঝে মাঝে বিশেষ দিবসের নাটকেও দেখা যায় তাকে। অন্যদিকে এই সময়ের দর্শকপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিম, নির্মাতাদের কাছে যার সিডিউল অনেকটাই স্বপ্নের মতো। এই দুই দর্শকনন্দিত তারকা এবারই প্রথম একসাথে অভিনয় করছেন।
বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে নোবেলকে দেখা গেলেও টিভি নাটকে কিংবা টেলিফিল্মে বিশেষ দিবস ছাড়া দেখাই মেলে না। কারণ নোবেল সবসময়ই বিজ্ঞাপনে কাজ করাটাকে প্রাধান্য দিয়ে এসেছেন। পাশাপাশি অভিনয়ের জন্য যে সময়টা দেয়া প্রয়োজন সেই সময় তার নেই। তিনি চাককি করেন, বিধায় অভিনয়ে সময় দেয়া হয়ে উঠে না তার।

তাই তার সিডিউলের সাথে সিডিউল মিলিয়ে পরিচালক রায়হান খান এর আগে বেশ ক’বার সিডিউল নিয়েছিলেন মোশাররফ করিম ও পূর্ণিমার। কিন্তু পরিচালক অসুস্থ হয়ে পড়ার কারণে নির্ধারিত সময়ে নাটকটির শুটিং শুরু করা যায়নি। অবশেষে নোবেল ও মোশাররফ করিমের সাথে পূর্ণিমাকে রেখে রায়হান খান নির্মাণ করছেন আসছে ঈদের জন্য বিশেষ নাটক ‘যখন সময় থমকে দাঁড়ায়’।

স্যাটেলাইট চ্যানেল আরটিভির জন্য নির্মিত এই নাটকের বিশেষ দিক হিসেবে পরিচালক উল্লেখ করেছেন একসাথে প্রথমবারের মতো নোবেল ও মোশাররফ করিমের একই নাটকে অভিনয় করা। সাথে আছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা পূর্ণিমা। একটি বিশেষ চরিত্রে আছেন নোভা।

গত শুক্রবার মোশাররফ করিম, পূর্ণিমা ও নোভাকে নিয়ে নাটকটির শুটিং শুরু হয়। কিন্তু পরের দিন রায়হান খান নোবেল কেন্দ্রিক শুটিংকেই প্রাধান্য দিয়ে কাজ করেন। কারণ নোবেল মাত্র একদিন শুটিং এর জন্য সময় দিতে পেরেছিলেন। সপ্তাহের রবি থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত অফিসিয়াল কাজে ব্যস্ত থাকতে হয় নোবেলকে। যে কারণে যে দু’দিন ছুটি পান তা ব্যক্তিগত কাজেই চলে যায় নোবেলের। তাই নাটক বা টেলিফিল্মে অভিনয়ের জন্য আলাদা সময় বের করা খুব কঠিন তার জন্যে।

 

নাটকের গল্পে দেখা যাবে আনোয়ার ও অপূর্বার সুখের সংসার। কিন্তু এক দুর্ঘটনায় জ্ঞান হারায় অপূর্বা। দীর্ঘ দুই যুগ পর অপূর্বার জ্ঞান ফিরে। কিন্তু ততোদিনে তার স্বামী আনোয়ারের বয়স সত্তরের কাছাকাছি হলেও অর্পূবার বয়স যা ছিলো তাই আছে। ঘটনাক্রমে পরিচয় হয় রক স্টার ফয়সালের সঙ্গে অপূর্বার। ফয়সাল’র প্রতি দুর্বল মিথিলা। এগিয়ে যায় গল্প। নাটকে রক স্টার ফয়সাল চরিত্রে নোবেল, আনোয়ার চরিত্রে মোশাররফ করিম, অপূর্বা চরিত্রে পূর্ণিমা এবং মিথিলা চরিত্রে নোভা অভিনয় করছেন।

নাটকটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে নোবেল বলেন, ‘পূর্ণিমা খুব মিষ্টি মেয়ে। পাশাপাশি খুবই গুছানো একজন অভিনেত্রী। অভিনয় করার সময় পূর্ণিমা জানে সে কী করছে। একজন শিল্পীর জন্য এটা জানা খুব জরুরি। আর মোশাররফ করিমতো অভিনয়ের একজন মহাজন। তারসঙ্গে অভিনয় করে আমি গর্ববোধ করছি।’

মোশাররফ করিম বলেন, ‘পূর্ণিমার সাথে এর আগে একটি নাটকেই কাজ করেছি। তবে নোবেল ভাইয়ের সাথে এবারই প্রথম। নাটকের গল্পটা খুবই দারুণ। গল্পটা আমার কাছে অভিনয়ে বেশি মনোযোগ দাবি করছে। আমি মনোযোগ দেয়ার চেষ্টা করছি। নোবেল ভাই আমার পছন্দের একজন মানুষ, তারসঙ্গে কাজটি উপভোগ করছি।’

এর আগে নোবেল ও পূর্ণিমা রায়হান খানের নির্দেশনায় হুমায়ূন আহমেদ’র লেখা ‘যদি ভালো না লাগে দিওনা মন’ টেলিফিল্মে অভিনয় করেছিলেন ২০১১ সালে। মোশাররফ করিম ও পূর্ণিমা অভিনয় করেছিলেন ২০১৫ সালে তুহিন’র নির্দেশনায় ‘প্রেম অথবা দুঃস্বপ্নের রাত দিন’ নাটকে।

পরিচালক রায়হান খান জানান, নোবেলকে সাথে নিয়ে আরো একদিন শুটিং করলেই নাটকটির শুটিং শেষ হবে। নোবেল এখনো সেই সিডিউল দেননি। মোশাররফ করিম, পূর্ণিমার সাথে সময় সমন্বয় করেই তিনি সিডিউল দিবেন। আর তখন আবারো জমে উঠবে ‘যখন সময় থমকে দাঁড়ায়’।

এদিকে আসছে ঈদে নোবেল ও শখকে হিমেল আশরাফের নির্দেশনায় একটি নাটকে অভিনয় করতে দেখা যাবে। প্রায় তিনমাস আগেই এই নাটকের শুটিং শেষ করেছেন নোবেল। শুধু নোবেলকে নিয়ে আগামী ঈদের জন্য নাটক নির্মাণ করতে চান এমন নির্মাতার সংখ্যাও আছে অনেক। কিন্তু নোবেল সময় দিতে পারছেন না।

মোশাররফ করিম অভিনীত শামীম জামান পরিচালিত আরটিভির প্রচার চলতি ধারাবাহিক নাটক ‘ঝামেলা আনলিমিটেড’ শততম পর্ব অতিক্রম করেছে। আসছে ঈদের জন্য তিনি ফজলুল সেলিমের নির্দেশনায় ‘সব চরিত্র কাল্পনিক নয়’ নাটকে অভিনয় করেছেন তার সহধর্মিনী জুঁই’র সাথে জুটি বেঁধে।

Website Design Company in Dhaka, Web page design company in uttara, website design company in uttara

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top